0 votes
56 views
in পরিবার,বিবাহ,তালাক (Family Life,Marriage & Divorce) by (2 points)
আসসালামুআলাইকুম শায়েখ।

আমাদের বিয়ে হয়েছে ৫ বছর আগে।বিয়ের পর থেকেই আমাদের মাঝে সামান্য বিষয় নিয়ে ঝগড়া হতো,ঝগড়ার সময় অসংখ্যবার আমি তার কাছে তালাক চেয়েছি। সে আমাকে বলতো আমি কেনো তালাক দিবো তুমি লিখিতভাবে তালাক দাও আমি মেনে নিবো।এখন প্রশ্ন হলো শায়েখ

১.আমি যখন তালাক চেয়েছি (আমরা সামনাসামনি ছিলাম)তখন কয়েকবার এর ঘটনা তার মনে তালাকের নিয়ত ছিলো(এক তালাক বা তিন তালাক নিয়ত নয়, শুধু তালাকের নিয়ত)এবং তালাক চাওয়ার প্রেক্ষিতে বলেছে ঠিক আছে চলে যাও,তোমার থাকার ইচ্ছা না থাকলে চলে যাও,এরকম কেনায়া বাক্য আরও বলতে পারে। তার মতে এই ঘটনা শুরুর দিকের ঘটনা,আল্লাহ্‌ ভালো জানেন।

শায়েখ এতে কী এক তালাকে বায়েন পতিত হয়েছে?

২.মাঝে ২-৩ বার সে ঝগড়া করে বাসা থেকে চলে গেছে,সে বলছে যে তার তালাকের নিয়ত ছিলো(এক তালাক বা দুই তালাক এমন নয়)সে যাওয়ার সময় বলছিল আর ফিরে আসবে না,আমার সাথে সংসার করবে না এমন নিয়ত ছিল।এই দুইটা ঘটনা ক্রমান্বয়ে ঘটেছে। কোনটা আগে ঘটেছে মনে নেই।দুইটা ঘটনার দ্বারা কী দুইটা আলাদা তালাক হয়েছে,নাকী একটাই বায়েন তালাক হয়েছে?

৩.একবার তালাক চেয়েছিলাম তখন সে মুখে বলে "এক তালাক"।কিন্তু এই ঘটনা আগের দুইটা ঘটনার আগে ঘটেছে নাকী পরে তা স্পষ্ট মনে নেই।তবে সে বলছে এটা পরেই ঘটতে পারে। মুখে এক তালাক বলার পর আমরা একসাথেই ছিলাম।

৪.এই তিনটা ঘটনার পর একবার বাসা থেকে তাকে না বলে বের হইছিলাম,তখন সে রাগান্বিত ছিল,মনে তালাকের নিয়ত ছিল আমার সাথে সংসার করবে না।

৫.একবার সে রাগান্বিত হয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যেতে বলে,মনে তালাকের নিয়ত ছিলো মনে হয়,আমি বের হয়ে যাই একটু পর আবার ফিরে আসি,সে আমাকে গ্রহণ করে।

শায়েখ প্রত্যেকটা ঘটনাতে কী আলাদা আলাদা তালাক হয়েছে?আমাদের কী পুনরায় বিয়ে পড়ানোর সুযোগ আছে? আর থাকলে উনি আর কয় তালাকের অধিকার রাখে?

সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করুন শায়েখ।

1 Answer

0 votes
by (469,840 points)
edited by

ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ-

আলহামদুলিল্লাহ!

মুযাকারায়ে তালাক বা তালাকের আলোচনা

وَفِي حَالَةِ مُذَاكَرَةِ الطَّلَاقِ يَقَعُ الطَّلَاقُ فِي سَائِرِ الْأَقْسَامِ قَضَاءً إلَّا فِيمَا يَصْلُحُ جَوَابًا وَرَدَّا فَإِنَّهُ لَا يُجْعَلُ طَلَاقًا كَذَا فِي الْكَافِي

তালাকের আলোচনার পরিস্থিতিতে সকল প্রকার কেনায়া তালাকে তালাক পতিত হবে।তবে যে শব্দগুলো তালাকের আবেদনের জবাব এবং রদ উভয়টা বুঝাবে,সে শব্দুগুলো দ্বারা তালাক পতিত হবে না।(ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়া-১/৩৭৫)


প্রশ্ন জাগে,মুযাকারায়ে তালাক কাকে বলে?

এ বিষয়ে রদ্দুল মুহতারে বর্ণিত রয়েছে,

"(قَوْلُهُ: وَهِيَ حَالَةُ مُذَاكَرَةِ الطَّلَاقِ) أَشَارَ بِهِ إلَى مَا فِي النَّهْرِ مِنْ أَنَّ دَلَالَةَ الْحَالِ تَعُمُّ دَلَالَةَ الْمَقَالِ قَالَ: وَعَلَى هَذَا فَتُفَسَّرُ الْمُذَاكَرَةُ بِسُؤَالِ الطَّلَاقِ أَوْ تَقْدِيمِ الْإِيقَاعِ كَمَا فِي اعْتَدِّي ثَلَاثًا وَقَالَ قَبْلَهُ الْمُذَاكَرَةُ أَنْ تَسْأَلَهُ هِيَ أَوْ أَجْنَبِيٌّ الطَّلَاقَ".

( كتاب الطلاق، بَابُ الْكِنَايَاتِ، ٣ / ٢٩٧)

মুযাকারায়ে তালাকের অর্থ হল, স্ত্রীর পক্ষ থেকে স্বামীর নিকট তালাকের আবেদন করা ,অথবা তৃতীয় কোনো ব্যক্তির পক্ষ থেকে স্বামীর নিকট তালাকের আবেদন এবং তামান্না করা। এই উভয় প্রকারকে 'মুতালাবায়ে তালাক' নামে অভিহিত করা হয়।তাছাড়া স্বামী যদি ইতিপূর্বে স্ত্রীকে এক বা দুই তালাক দিয়ে থাকে,তাহলে এদ্বারাও মুযাকারায়ে তালাক প্রমাণিত হবে।এই তৃতীয় প্রকারকে  তাকদীমূল ঈ'কা বলা হয়ে থাকে।(রদ্দুল মুহতার-৩/২৯৭) 


(দারুল ইফতা বিন্নুরী, পাকিস্তান,ফাতাওয়া নং- 144106200277)



সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!

(১)

স্ত্রী তালাক চেয়েছেন এবং তালাক চাওয়ার প্রেক্ষিতে স্বামী বলেছে ঠিক আছে চলে যাও, তোমার থাকার ইচ্ছা না থাকলে চলে যাও, এরকম কেনায়া বাক্য দ্বারা তালাক পতিত হবে। যেহেতু স্বামীর মনে কোনো নিয়ত ছিলনা, তাই এক সর্বনিম্ন এক তালাক বায়েন পতিত হবে।



(২)

তালাকের নিয়তে ঘর থেকে বের হলে তালাক পতিত হবে না। 


(৩)

একবার তালাক চেয়েছিলাম তখন সে মুখে বলে "এক তালাক"। এখানে এক তালাক পতিত হবে। এর পূর্বে বা পরে কি তালাক পতিত হবে? সে সম্পর্কে নিশ্চিত না হলে তো তালাক পতিত হবে না। 


(৪)

এই তিনটা ঘটনার পর একবার বাসা থেকে তাকে না বলে বের হইছিলাম,তখন সে রাগান্বিত ছিল,মনে তালাকের নিয়ত ছিল আমার সাথে সংসার করবে না।এদ্বারাও তালাক হবে না।



(৫)

একবার সে রাগান্বিত হয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যেতে বলে,মনে তালাকের নিয়ত ছিলো মনে হয়,আমি বের হয়ে যাই একটু পর আবার ফিরে আসি,সে আমাকে গ্রহণ করে। এদ্বারাও তালাক পতিত হবে না।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (469,840 points)
সংযোজন ও সংশোধন করা হয়েছে।
by
শায়েখ তাহলে আমাদের কয় তালাক পতিত হয়েছে?
বিবাহের মাধ্যমে সম্পর্ক আবার চালিয়ে নেওয়ার সুযোগ আছে কী?
দ্রুত উত্তর দিয়ে সাহায্য করুন।

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...