0 votes
21 views
in পবিত্রতা (Purity) by (11 points)
১. অপবিত্র ঘরের মেঝে পাক করবো কিভাবে? ওয়াসওয়াসা কাজ করে অনেক। বাচ্চা একাই প্রস্রাব করে সারা ঘরে ছোটাছুটি করে।  সন্দেহ হয় অযু করে হেঁটে গেলে হয়তো অযু ভেঙ্গে যাবে। এজন্যে একইসাথে কয়েক বার করে ঘর মোছা হয়।
২. হায়েয ৪,৫,৬ নাম্বার দিনে বন্ধ থেকে আবার ৭ নাম্বার দিনে শুরু হয়ে ১০ম দিনে শেষ হলে হায়েয ধরতে হবে কয়দিন?

1 Answer

0 votes
by (60,680 points)
জবাবঃ-
(১)
জমিনে একবার পেশাব শুকিয়ে গেলে জমিন পবিত্র হয়ে যায়,পরবর্তিতে উক্ত জমিন ভিজলে বা ভিজা পায়ে খছে ফেললে শরীর নাপাক হবে না।কেননা জমিন একবার পবিত্র হয়ে গেলে অপবিত্রতা আবার আর ফিরে আসবে না।
এ সম্পর্কে ফাতাওয়া কাযীখান এ বর্ণিত আছে,
والأرض إذا اصابتها النجاسة فجفت و ذهب أثرها ،ثم أصابها الماء بعد ذلك ،الصحيح أنها لا يعود نجسا ،١\٣١
তরজমাঃ-যদি জমিন নাজাসত মিশ্রিত হয় এবং তা শুকিয়ে যায় ও তার চিন্হ মুছে যায়,অতঃপর পরবর্তিতে তাতে আবার পানি মিশ্রিত হয় তাহলে বিশুদ্ধমতানুযায়ী নাজাসত আবার আর ফিরে আসবে না।(ফাতাওয়া কাযীখান,১/৩১)

জমিন বা পাকা মেঝে কিংবা টাইলস শুকিয়ে গেলে পবিত্র হয়ে যায়।একবার পবিত্র হয়ে গেলে আর অপবিত্র হবে না।

তবে ওয়াসওয়াসা দূর করতে, খালি পায়ে না হেটে জুতা পায়ে হাটতে পারেন।কিংবা উক্ত মোঝেকে, ধুয়ে মুছে পরিস্কার করে নিতে পারেন।

(২)
তিনদিন হায়েয আসার পর ৪.৫.৬ বন্ধ থাকার পর আবার সপ্তম দিন শুরু হলে দশদিন পর্যন্ত সম্পূর্ণ দশ দিনকেই হায়েয হিসেবে গণনা করা হবে।অর্থাৎ সাতদিন পরবর্তী আরো তিন দিন হায়েয হিসেবে পরিগণিত হবে।
 
এই দশদিন ইবাদত না করার জন্য আপনি গোনাহগার হবেননা।কেননা সম্পূর্ণ দশ দিনই তো হায়েয।হায়েযের জন্য লাগাতার ধারাবাহিক ভাবে রক্ত আসা শর্ত নয়,বরং মাঝেমধ্যে বন্ধ হয়ে আবার আসলেও সেটাকে হায়েয হিসেবেই গণ্য করা হবে।(কিতাবুল-ফাতাওয়া-২/১০৮)

وليس الشرط دوامه،فانقطاعه في مدته كنزوله
হায়েযের জন্য লাগাতার ধারাবাহিক দশদিন রক্ত আসা শর্ত নয়।বরং দশদিনের ভিতর মাঝেমধ্যে  আসাটাও ধারাবাহিক রক্ত আসার সমপর্যায়ের। (হাশিয়াতু-তাহতাবী-৭৬)
আরও জানতে পারবেন- 1394


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...