+1 vote
16 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (51 points)
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ।

মুহতারাম, বাজারে পাওয়া পারফিউমগুলোতে এলকোহল যুক্ত থাকে। কিন্তু এই এলকোহলযুক্ত জিনিস ব‍্যবহারে তো কোনো নেশা তৈরি হয়না।

1)তাহলে কি এই পারফিউম ব‍্যবহার জায়েজ?

2)এলকোহল নিজেই কি হারাম? কিন্তু পিওর এলকোহল খেলে নেশা তো দূরের কথা মৃত‍্যু হতে পারে।

3)করোনার কারণে তো আমাদের বিভিন্ন সেনিটাইজার ব‍্যবহার করতে হচ্ছে যেগুলোর ৬০-৭০% এলকোহল। এক্ষেত্রে কি করণীয়?

1 Answer

0 votes
by (14,240 points)
edited by
উত্তর
وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته 
بسم الله الرحمن الرحيم  

(০১) বডি স্প্রে বা পারফিউমে এ্যালকোহল ব্যবহার করা হয় মর্মে শুনা যায়। এক্ষেত্রে মাসআলা হল,
যে সমস্ত এলকোহল খেজুর বা আঙ্গুর দ্বারা বানানো হয়নি, তেমন বস্তু নেশা না আসা পর্যন্তের জন্য ব্যবহার জায়েজ ইমাম আবু হানীফা রহঃ এবং ইমাম আবু ইউসুফ রহঃ এর মতানুসারে। {ফাতহুল কাদীর-৮/১৬০, ফাতওয়ায়ে আলমগীরী-৫/৪১২, আল বাহরুর রায়েক-৮/২১৭-২১৮, ফাতওয়ায়ে মাহমুদিয়া-২৭/২১৯}

.
والمحرم منها أربعة ) أنواع الأول ( الخمر وهي النيء من ماء العنب إذا غلى واشتد وقذف بالزبد وحرم قليلها وكثيرها ) بالإجماع ( و ) الثاني ( الطلاء وهو العصير يطبخ حتى يذهب أقل من ثلثيه  وقيل ما طبخ من ماء العنب حتى ذهب ثلثاه وبقي ثلثه ) وصار مسكرا ( وهو الصواب ونجاسته كالخمر ) به يفتي ( و ) الثالث ( السكروهو النيء ماء الرطب )
( و ) الرابع ( نقيع الزبيب وهو النيء من ماء الزبيب ) بشرط أن يقذف بالزبد بعد الغليان ( والكل ) أي الثلاثة المذكورة ( حرام إذا غلي واشتد ) وإلا لم يحرم اتفاقا وإن قذف حرم اتفاقا وظاهر كلامه فبقية المتون أنه اختار ها هنا قولهما(تنوير الأبصار مع الدر المختار-  كتاب الأشربة -2/259
যার সারমর্ম হলো খেজুর বা আঙ্গুর দ্বারা বানানো হলে,বা নেশা তৈরী কারী হলেই কেবল সেটা হারাম হবে।
অন্যথায় নয়। 

বিভিন্ন সূত্রে আমরা জানতে পেরেছি যে, বর্তমানে এলকোহল খেজুর বা আঙ্গুর থেকে বানানো হয় না। তাই এটি ব্যবহার করা জায়েজ হবে। তবে যদি জানা যায় যে, এসব আঙ্গুর বা খেজুর থেকে বানানো হয়, তাহলে তা ব্যবহার করা জায়েজ নয়।

আর হারাম কোন বস্তু যেমন শুকর ইত্যাদির যদি এমনভাবে রিফাইন করা হয় যে, এসবের কোন মৌলিকত্ব বাকি না থাকে, তাহলেও উক্ত বস্তু ব্যবহার করা জায়েজ আছে। আর যদি সেসব হারাম বস্তুর মৌলিকত্ব বাকি থাকে, তাহলে উক্ত বস্তু যাতে মিশ্রিত করা হবে, তা ব্যবহার করা জায়েজ হবে না। {নিহায়াতুল মুহতাজ লির রামালি-৮/১২}

أما (الخمر) إذا خلله بعلاج بالملح أو بغيره يحل عندنا (الفتاوى الهندية،كتاب الأشربة وفيه بابان   الباب الأول في تفسير الأشربة والأعيان التي تتخذ منها الأشربة وأسماؤها وماهياتها وأحكامه-5/410
অনুবাদ-
মদকে যখন লবন বা অন্য কিছু দ্বারা সির্কা বানিয়ে ফেলা হয়, তখন তা হালাল হয়ে যায়। {ফাতওয়ায়ে হিন্দিয়া-৫/৪১০, মাজমাউল আনহুর-৪/২৫১, ফাতওয়ায়ে মাহমুদিয়া-২৭/২১৮}

এ মূলনীতির উপর ভিত্তি করে বুঝে নিন বিদেশী পণ্য ও বডি স্প্রে, পারফিউম, শেম্পু ইত্যাদি ব্যবহার করার বিধান। যদি ওসব বস্তুুতে খেজুর বা আঙ্গুরের তৈরী এ্যালকোহল ব্যবহার করা হয়, তাহলে তা ব্যবহার জায়েজ নয়। নতুবা তা নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকলে জায়েজ নয়। সম্ভাবনা না হলে জায়েজ।

আর যদি অন্য কোন হারাম বস্তু মিশ্রিত হয়, আর মিশ্রিত করার আগে তাকে এমনভাবে প্রসেসিং করে যে, হারাম বস্তুটির মৌলিকত্ব বাকি থাকে না, তাহলে তা ব্যবহার করা জায়েজ হবে, আর যদি মৌলিকত্ব বাকি থাকে তাহলে তা ব্যবহার করা জায়েজ হবে না।

যদি হারাম বস্তু মিশ্রিত করা হল কি না? জানা নেই। তাহলেও উক্ত পারফিউম, বডি স্প্রে ব্যবহারে কোন সমস্যা নেই।

في التتارخانية: من شك في إنائه أو في ثوبه أو بدن أصابته نجاسة أو لا فهو طاهر ما لم يستيقن، وكذا الآبار والحياض والجباب الموضوعة في الطرقات ويستقي منها الصغار والكبار والمسلمون والكفار؛ وكذا ما يتخذه أهل الشرك أو الجهلة من المسلمين كالسمن والخبز والأطعمة والثياب اهـ ملخصا.(رد المحتار، كتاب الطهارة، قبيل مطلب فى ابحاث الغسل-1/283، الفتاوى التاتارخانية، كتاب الطهارة، نوع آخر فى مسائل الشك-1/146، الأشباه والنظائر، القاعدة الثلاثة، اليقين لا يزول بالشك
,

(০২) যে সমস্ত এলকোহল খেজুর বা আঙ্গুর দ্বারা বানানো হয়নি, তেমন বস্তু নেশা না আসা পর্যন্তের জন্য ব্যবহার খাওয়া জায়েজ। 
সে নিজে হালাল।
তবে শর্ত হলো শরীরের জন্য যেনো কোনো ক্ষতিকর না হয়। 
,
আর যদি খেজুর বা আঙ্গুর দ্বারা বানানো হয়,বা নেশা তৈরী হয়,বা শরীরের জন্য ক্ষতিকর হয়,তাহলে তাহা  জায়েয নয়।
হারাম।
,
(০৩) শরীয়তের বিধান হলো হারাম বস্তু দ্বারা চিকিৎসা গ্রহন করা জায়েজ নেই। 
তবে যদি মুসলিম অভিজ্ঞ ডাক্তার বলে যে ইহা ছাড়া অন্য কোনো ঔষধ নেই,তাহলে প্রয়োজন মোতাবেক       এমন চিকিৎসা গ্রহন করা জায়েজ আছে। 
,
সুতরাং প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে করোনার কারনে আমাদের যে বিভিন্ন সেনিটাইজার ব্যবহার করতে হচ্ছে,যেগুলোর ৬০-৭০% এলকোহল।
  
ঐ এলকোহল যদি খেজুর বা আঙ্গুর দ্বারা বানানো না হয়ে থাকে,তাহলে তো কোনো সমস্যাই নেই।
,
আর যদি খেজুর বা আঙ্গুর দ্বারা বানানো হয়ে থাকে,তাহলে  যদি কোনো মুসলিম অভিজ্ঞ ডাক্তার বলে যে ইহা ছাড়া অন্য কোনো ঔষধ নেই,তাহলে প্রয়োজন মোতাবেক এমন চিকিৎসা গ্রহন করা জায়েজ আছে। 
,
অন্যথায় জায়েজ নেই। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...