0 votes
13 views
in পবিত্রতা (Purity) by (44 points)
মেসওয়াক করার সময় কফ এর সাথে হালকা রক্ত দেখতে পাই।আমার ঠান্ডা লেগেছে। চাপ দিয়ে মেসওয়াক করলে এসেছে নাকি ঠাণ্ডাজনিত কারণে বুঝতে পারছি না। এর আগে কখনো কফ এর সাথে রক্ত গলা দিয়ে চলে গেছে কিনা তাও বুঝছি না। চাপ না দিলে হালকা ভাবে মাজলে কিছু আসছে না। কিন্তু পরবর্তী তে গলায় কফ জমে থাকলে রক্ত মিশ্রিত কিনা জানার তো উপায় বুঝছি না। এমন অবস্থায় নামাজ ওযু কিভাবে করবো?

1 Answer

0 votes
by (20,400 points)

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ

পূর্বের কিছু ফতোয়াতে আমরা উল্লেখ করেছি যে  শরীয়তের বিধান মতে অযু ভেঙ্গে যাওয়ার অন্যতম একটি কারন হলো  রক্ত, পূঁজ, বা পানি বের হয়ে গড়িয়ে পড়া। 

 

হাদীস শরীফে এসেছেঃ   

أَنَّ عَبْدَ اللهِ بْنَ عُمَرَ كَانَ إِذَا رَعَفَ، انْصَرَفَ فَتَوَضَّأَ

আব্দুল্লাহ বিন উমর রাযি.-এর যখন নাক দিয়ে রক্ত ঝরতো, তখন তিনি ফিরে গিয়ে অযু করে নিতেন। (মুয়াত্তা মালিক ১১০)

 

عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ عُمَرَ أَنَّهُ كَانَ يُفْتِي الرَّجُلَ إِذَا رَعَفَ فِي الصَّلَاةِ، أَوْ ذَرَعَهُ قَيْءٌ، أَوْ وَجَدَ مَذِيًّا أَنْ يَنْصَرِفَ فَيَتَوَضَّأُ

আব্দুল্লাহ বিন উমর রাযি. থেকে বর্ণিত। তিনি যদি কারো নামাযরত অবস্থায় নাক দিয়ে রক্ত ঝড়তো, বা বমি হতো, বা মজি বের হতো তাহলে তাকে ফিরে গিয়ে অযু করার ফাতওয়া প্রদান করতেন। (মুসান্নাফ আব্দুর রাজ্জাক ৩৬১০)

 

ফাতাওয়ায়ে শামীতে এসেছেঃ   

ثم المراد بالخروج من السبيلين مجرد الظهور وفي غيرهما عين السيلان ولو بالقوة، لما قالوا: لو مسح الدم كلما خرج ولو تركه لسال نقض وإلا لا

যার সারমর্ম হলো  কেউ রক্তকে বের হওয়া মাত্রই যখমের মুখ থেকে মুছে নেয়,যদি উক্ত ছেড়ে দেয়া হত,তবে প্রবাহিত হত,এমন প্রকারের যখমের রক্তের কারণে অজু ভেঙ্গে যাবে। নতুবা অজু ভঙ্গ হবে না।

(ফাতাওয়ায়ে শামী ১/১৩৪)

 

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!

 

১. কফের সাথে যদি রক্ত বের হয় এবং তা পরিমাণে কম হয় তাহলে ওজু ভাঙ্গবে না। আর যদি বেশী পরিমাণের হয় তাহলে ওজু ভেঙ্গে যাবে।

২. যতক্ষণ কফের সাথে গলার মধ্যে রক্ত থাকবে ততক্ষণ ওজু ভাঙ্গবে না। ওজু ভাঙ্গবে তখন যখন গলা থেকে বা মুখ থেকে বা কফ তুলার মাধ্যমে রক্ত  বের হবে এবং তা পরিমাণে বেশী হবে।

৩.  গলায় কফ জমে থাকলে তা রক্ত মিশ্রিত কি না তা দেখার কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ যতক্ষণ কফের সাথে গলার মধ্যে রক্ত থাকবে ততক্ষণ ওজু ভাঙ্গবে না। তাই আপনি স্বাভাবিক ভাবে ওজু গোসল করবেন।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী আব্দুল ওয়াহিদ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...