0 votes
12 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (3 points)
১) আমলের প্রতিযোগিতা করে, রেজিষ্ট্রেশন ফি নেয়া এবং সবচেয়ে বেশি স্কোর যার শুধুমাত্র সো কজনকে পুরষ্কার দেয়া জুয়া খেলার সামিল বিষয় টা আপনাদের কিছু প্রশ্নোত্তর থেকে জানতে পেরেছি।
আমার প্রশ্ন হল এসব কাজ অবশ্যই আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য সেটা ঠিক আছে।কিন্তু প্রতিটা কাজের জন্যই সময় দিতে হয়,খরচ আছে।যদিও সামান্য কিছু টাকার বিনিময়ে সেটা কখনোই পূরন করা সম্ভব না।তারপরও কাজের সম্মানি হিসেবে রেজিষ্ট্রেশন ফি টা কি নেয়া যাবে না?আর ফ্রি জিনিসের মূল্যাযন করা হয় না।


২) রেজিষ্ট্রেশন ফি নেয়া যদি জায়েজ না হয়ে থাকে তাহলে এই কাজের সাথে জড়িত রা নূন্যতম একটা সম্মানি বা হাদিয়া আশা করে।সেটা কিভাবে নেয়া যাবে?
৩) কোন অভ্যাস পরিবর্তন এর চ্যালেন্জ, সেটার মধ্যে আমল ইবাদত এর বিষয় ও আছে। একটা রুটিনের মত করে দিয়ে ব্যাচ আকারে Introduce করে সেটার জন্য ফি কিভাবে নেয়া যেতে পারে? কারন,সব কাজ ফ্রি তে করা সম্ভব না। কারন,সবারই খরচ থাকে।একটা পেইজ চালাতে ও খরচ হয়।একটা আইডিয়া কে কাজে রূপান্তর করতেও অনেক সময়, খরচ হয়ে থাকে।সবকিছু মিলিয়ে ফি/ আর্থিক বিষয় চলেই আসে।কিভাবে করলে কাজ টা জায়েজ হবে, ফি নেয়ার জন্য বৈধতা আসবে এবং আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যও কাজ করা হবে জানাবেন প্লিজ।
৪) বিভিন্ন ওয়েবিনার এর মাধ্যমে বিভিন্ন শিক্ষনীয় বই আলোচনা করে সেটার জন্য রেজিষ্ট্রেশন ফি /ফি নেয়া বৈধ?আলোচনা কোন বই থেকে করলে সেটা কি কোন প্রকাশনীর হক নষ্ট হবে?কিভাবে করলে সব কিছু বৈধ হবে?

জাযাকুমুল্লাহু খাইরন।

1 Answer

0 votes
by (255,440 points)
edited by

ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু।
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
https://www.ifatwa.info/9640 নং ফাতাওয়ায় আমরা উল্লেখ করেছি যে,
শরীয়তে  মূলনীতি হল, প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য যদি ফিস না থাকে,তাহলে উক্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ জায়েয হবে।তবে শর্ত হল, তাতে শরীয়ত বিরোধী কোনো কর্মকান্ড তাতে না থাকতে পারবে না। আর যদি তাতে ফিস থাকে তবে জায়েয হবে না। কেননা তখন এটা জুয়া হয়ে যাবে, যা পরিস্কার হারাম।

আল্লাহ তা'আলা বলেন,
يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُواْ إِنَّمَا الْخَمْرُ وَالْمَيْسِرُ وَالأَنصَابُ وَالأَزْلاَمُ رِجْسٌ مِّنْ عَمَلِ الشَّيْطَانِ فَاجْتَنِبُوهُ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ
হে মুমিনগণ, এই যে মদ, জুয়া, প্রতিমা এবং ভাগ্য-নির্ধারক শরসমূহ এসব শয়তানের অপবিত্র কার্য বৈ তো নয়। অতএব, এগুলো থেকে বেঁচে থাক-যাতে তোমরা কল্যাণপ্রাপ্ত হও।(সূরা মায়েদা-৯০)
বিস্তারিত জানুন- https://www.ifatwa.info/434

সুপ্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
(১) রেজিষ্টেশন বাবৎ টাকা নেয়া যেতে পারে,তবে পুরুস্কার বাবৎ কোনো কিছু রাখা যাবে না।যতটুকু খরচ হবে,এবং সাথে শ্রমমূল্য বাবৎ যতসামান্য কিছু টাকা গ্রাহকদের নিকট থেকে উসূল করা যাবে। তবে শর্ত হল,পরবর্তীতে কোনো পুরুস্কার রাখা যাবে না।

(২)
পুরুস্কার থাকলে রেজিষ্টেশন ফি নাজায়েজ। আর শেষে কোনো পুরুস্কার না থাকলে, রেজিষ্টেশন ফি নিতে বাধা নেই,যদি গ্রাহকরা দিতে সম্মত থাকে।

(৩)
আপনি রেজিষ্টেশন ফ্রি নিতে পারেন,যদি পরবর্তীতে পুরুস্কার না রাখেন।

(৪)
আপনার প্রশ্ন অস্পষ্ট, তাই আপনাকে পরিস্কার করে প্রশ্ন করার আহবান জানাবো।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (255,440 points)
সংযোজন ও সংশোধন করা হয়েছে।
by (3 points)
৪) একটা বই এর আলোচনা যদি করা হয়,সেটার আলোচনা, সম্পূর্ন বইয়ের আলোচনা করা কি জায়েজ হবে?প্রকাশনীর কি হক নষ্ট হবে এতে?

আর একটা বইয়ের আলোচনা করলে সেটা শেষ করতে ১০/১৫ দিন,২/৩ দিন সময় ভেদে বই ভেদে ভিন্নতা থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে সেই বইয়ের (সম্পূর্ন কিংবা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো)আলোচনা করলে, ওয়েবিনার এর আয়োজন করলে বা রেকর্ড করে শেয়ার করলে সেটার বিনিময়ে কোন ফি নেয়া কি জায়েজ হবে?
by (255,440 points)
হুবহু বইয়ের ছবি প্রকাশ না করে বরং বইয়ে লিখিত বিষয়ের সারমর্ম নিয়ে আলোচনা করা যাবে।

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...