0 votes
16 views
in পবিত্রতা (Purity) by (27 points)
edited by
১/ আমি যখন নাপাক অবথায় থাকি তখমন এটা বেশি হয়।যেমন এক জায়গায় বসলে মনে হয় হয়তো আমদর গা থেকে কোনো ময়লা বিছানায় উরে গলে। এটা নাপাক হয়ে গেল।আবার অনেক সমশ গা ঘামালে চুলকানো লাগে।আমি অনেক সাবধানে চুলকায় যাতে ঘামের ছিটা কোনো জায়গায় না৷ যায়।কিন্তু তখনও মনে হয় ঘামের ছিটা বুঝি গেল।এটা াযখন নাপাক থাকি তখন হয়।এটা কী ওয়াসওয়াসা

২/ কোনো ব্যক্তি যত বেশিই নাপাক থাকুক না কেন তার গা থেকে কী  এমনই ময়লা বা পানি ছওটতে৷ পারে।

৩/ আবার নাপাক অবস্থায় থাকলে মনে হয় যেন নাক দিয়ে বাতাসের সাথে কোনো ময়লা বের হয়ে বিছানায় পরল।এটা চেক কীতে গেলে আরও বেশি সমস্যা হয়।আর না চেক করলে কোনো সমস্যাই হয় না

৪/ এই সমস্যার কথা আমি আমার মায়ের সাথে শেয়ার করেছি তিনি বলেন এটা ওয়াসওয়াসা।

৫/ আবার বালিশে শুয়ে এক কাত হতে অন্য কাতে পরিবর্তন করলে মনে হয় বালিশের সাথে মাথা ঘষা লেগে কোনো ময়লা যদি ছিটে। এটা কী ওয়াসওয়াসা।

৬/ আবার কথা বলার সময় মনে হয় যেন মুখ থেকে থুথু ছিটল।আমি অনেক বার একা জোরে কথা বলে চপক করেছি যে থুথু বের হয় কীনা কথা বললে।কোনোদিনও বের হয় নাই।এটা কী ওয়াসওয়াসা

৭/ আমি iom  এর দৈনন্দিন মাসয়ালা রয়োজনীয় কোর্সে ভর্তি হতে চাই।আমার কী কী লাগবে।।

৮/ আমি অনেক সময় মনে হয় প্রসাব/ মযি/ ওদি বের হচ্ছে।তখন চেক করি।চেক করলে কিছু পাই না।কিন্তু তখন এই ওয়াসওয়াসা আসে যে আমার চেক করা সহিহ হয়নি।আর ভাল করে করি এভাবে কোনো সময় ১৫-২৫ মিনিট ও লাগে চেপ করতে। কিন্তু হয় না।আবার যদি এটাকে কওছু মনে না করে গুরুত্ব না দেই যে না আমার কিছু বের হচ্ছে না।কারন এমনই একজন মানুষ স্বাভাবিক বসে আছে ; এতে তে এমনই এমনই প্রসাব/ মযি/ ওদি বের হবে না।আমি কী এভাবে চিন্তা করব।

1 Answer

0 votes
by (226,320 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
(১) জ্বী, এটা ওয়াসওয়াসা। 
হযরত আবু হুরায়রা রাযি থেকে বর্ণিত,তিনি বলেন,
ﻋﻦ ﺃﺑﻲ ﻫﺮﻳﺮﺓ ﺭﺿﻲ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻨﻪ ﺃﻥ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠّﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠّﻢ ﻗﺎﻝ : ( ﻳَﺄْﺗِﻲ ﺍﻟﺸَّﻴْﻄَﺎﻥُ ﺃَﺣَﺪَﻛُﻢْ ﻓَﻴَﻘُﻮﻝُ ﻣَﻦْ ﺧَﻠَﻖَ ﻛَﺬَﺍ ﻣَﻦْ ﺧَﻠَﻖَ ﻛَﺬَﺍ ﺣَﺘَّﻰ ﻳَﻘُﻮﻝَ ﻣَﻦْ ﺧَﻠَﻖَ ﺭَﺑَّﻚَ ﻓَﺈِﺫَﺍ ﺑَﻠَﻐَﻪُ ﻓَﻠْﻴَﺴْﺘَﻌِﺬْ ﺑِﺎﻟﻠَّﻪِ ﻭَﻟْﻴَﻨْﺘَﻪِ ﻭﻓﻲ ﺭﻭﺍﻳﺔ ﻣﺴﻠﻢ : ( ﺁﻣﻨﺖ ﺑﺎﻟﻠﻪ ﻭﺭﺳﻠﻪ)
রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেছেন,শয়তান তোমাদের কারো নিকট উপস্থিত হয়ে জিজ্ঞেস করে, এটা কে বানিয়েছে?ওটা কে বানিয়েছে?শেষ পর্যন্ত জিজ্ঞেস করে, খোদা-কে বানিয়েছে? যখন এমন অবস্থায় কেউ পতিত হবে,সে যেন আল্লাহর নিকট পানাহ চায়।এবং সাথে সাথে সে যেন উক্ত বিষয়ে চিন্তা করা থেকে বিরত থাকে।এক বর্ণনায় এসেছে সে যেন আ'মানতু বিল্লাহি ওয়া রুসুলিহি পড়ে নেয়।(সহীহ বোখারী-৩১০২,সহীহ মুসলিম-১৩৪)

(২)আপনার এ প্রশ্নটি আমরা বুঝিনি। দয়া করে কমেন্টে পরিস্কার করে প্রশ্নটা লিখুন। 

(৩) আপনি চেক করবেন না। কেননা নাক থেকে কোনো ময়লা বের হলেও তার কারণে শরীর বা কাপড় নাপাক হবে না। এটা শয়তানের ওয়াসওয়াসা।
(৪) জ্বী, আপনার মায়ের কথা সঠিক। এটা ওয়াসওয়াসা। 
(৫) ঘাম দ্বারা শরীর বা কাপড়  নাপাক হয় না। সুতরাং এটাও ওয়াসওয়াসা। 
(৬) থুথু নাপাক নয়। সুতরাং এটাও ওয়াসওয়াস। 
(৭) ইসলামিক অনলাই মাদরাসার ওয়েবসাইটে প্রদত্ত ঠিকানায় যোগাযোগ করুন। 
(৮) এটাও ওয়াসওয়াসা। সুতরাং এরকম মনের সন্দেহকে দূর করে দিন। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

Related questions

...