+1 vote
25 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (17 points)
closed by
আসসালামু আলাইকুম শাইখ। সম্প্রতি দাঈ জুনায়েদ জামশেদ এর নামের পর রাহিমাহুল্লাহ উল্লেখ করাতে এক ভাই আমাকে বললেন যে, সবার ক্ষেত্রে রাহিমাহুল্লাহ ব্যবহার করা যায় না। অনেক উঁচু লেভেলের আলেম হতে হবে।
আমি জানতে চাচ্ছিলাম এমন কোন শর্ত আছে কি? নাকি বাহ্যিকভাবে দ্বীনদার এমন যে কোন মুসলিম মারা গেলে আমরা রাহিমাহুল্লাহ বলতে পারবো?
closed

1 Answer

+1 vote
by (32.3k points)
selected by
 
Best answer
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-
রাহিমাহুল্লাহু একটি দু'আ, যার অর্থ হলো, আল্লাহ তাকে রহম করুক।

সুতরাং যেকোনো জীবিত কিংবা মৃত মুসলমানের ব্যাপারে রাহিমাহুল্লাহু বলা যাবে।যদিও ব্যবহারিক ভাবে এই দু'আটি মৃতদের জন্য খাস হয়ে গেছে।তথাপি জীবিতদের বেলায়ও এই দু'আ কে প্রয়োগ করা যাবে।

প্রত্যেক মুসলমানের জন্য উচিৎ,সর্বদা একে অন্যর জন্য দু'আ করা।বিশেষ করে অনুপস্থিত কোনো ভাইর জন্য দু'আ করা।কেননা হাদীস শরীফে এসেছে, অনুপস্থিত কারো জন্য দু'আ করলে সেই দু'আ কে আল্লাহ তা'আলা তারাতারি কবুল করে নেন।
আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ, Iom.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...