0 votes
18 views
in পবিত্রতা (Purity) by (2 points)

আসসালামু আলাইকুম,

হজরত একটা ব্যাপার নিয়ে বেশ কনফিউশন এ ভুগছি।
অনেক সময় গোসল ফরজ হলে তাড়াতাড়ি গোসল করা যায় না কিংবা শরীরে নাপাকী লেগে থাকে।এইরুপ অবস্হায় কি দরুদ শরীফ "সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম" কিংবা
এস্তেগফার "আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুউউন তুহিব্বুল আফওয়া ফা'ফু আন্না" পড়া যাবে??

1 Answer

0 votes
by (32.3k points)
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-

গোসল ফরয অবস্থায় কুরআন-কে স্পর্শ করা বা কুরআন তেলাওয়াত করা এবং মসজিদে প্রবেশ করা নাজায়েয। এছাড়া অন্য কিছু নাজায়েয হওয়ার বিষয়ে কুরাআন-হাদীসে কোথাও বর্ণনা আসেনি।যেহেতু নামাযে কুরআন তেলাওয়াত করতে হয়,তাই তখন নামায পড়াও নিষিদ্ধ।

সুতরাং আপনি গোসল ফরয অবস্থায় বিভিন্ন দু'আ পড়তে পারবেন।কুরআনের আয়াতের কোনো অংশকে দু'আর নিয়তে তখন পড়তে পারবেন।

কিতাবুল-ফাতাওয়া-২/৬৬

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, Iom.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

...