0 votes
48 views
in Business by (21 points)
edited by
আসসালামু আলাইকুম ,
বর্তমানে বোনেরা পর্দার জন্য বিভিন্ন রং এর খিমার  বোরকা পরিধান করেন।যেমন: গোলাপি, সবুজ,নীল, বেগুনী, কফি,সুরমা, খয়েরী ইত্যাদি। এই ধরনের খিমার ঢিলা ঢালা হয়, সতর ঢেকে থাকে,কিন্তু হাতার ডিজাইন ও কাপড়  আকর্ষণীয় সৌন্দর্য্যমন্ডিত হয়ে থাকে। এই ধরনের পোশাক:হিজাব,খিমার ও বোরকা পড়া ও এর ব্যবসা করা কি জায়েয?
অনেকেই বলেন-এগুলো জায়েয।আমাদের এক জনপ্রিয় আলেম কারণ দর্শিয়েছেন যে এগুলোতে সতর ঢাকে,শরীর ঢাকে, শরীর এর  শেপ খুব কম বুঝা যায়। আর আমার জানামতে তিনি আরো বলেন-এই শর্ত গুলা থাকলে নাকি যেকোনো পোশাক পড়া যাবে, রং এর ব্যাপারে কোনো বাধা ধরা নেই কুরআন ও হাদীসে।টাইট ফিট পোশাক তো আর পড়ছেনা! পর্দা করলেই ক্ষ্যাত হতে হবে কোনো কালার পড়া যাবেনা এমন  কোথাও লেখা নেই,একটু বর্নিল হলে ক্ষতি কি - এই যুক্তি দেখায় অনেকে।
কিন্ত আমার মনে খটকা লাগছে বাহারি রং এ সৌন্দর্য্যমন্ডিত খিমার দিয়ে তো পুরুষের নজরকারা হচ্ছে আরো,আর লেস জাতীয় জিনিস লাগানো তো আছেই।

বর্তমানে আমি  এরকম একটা বিজনেস এ ইনভেস্ট করেছি। কিন্তু মনে শান্তি পাচ্ছিনা।মনে হচ্ছে ফিতনার দরজা খুললাম না তো?! দয়াপরবশ আমাকে একটু দ্রুত উত্তর দিলে উস্তাদ আমি সেই অনুযায়ী ব্যবসাটা পরিচালনা করতে  চাই।শুধু কালো বা অন্য অনাকর্ষনীয় ডার্ক কালার এর খিমার পরিধান ও এর ব্যবসা করা শুরু করতে চাচ্ছিলাম।কিন্তু আমার বিজনেস পার্টনার বলছে কালার এ কোনো সমস্যা নেই আর আমিও কোনো প্রমান দেখাতে পারছিনা।দলিলসহ এর প্রমান দিলে যেন আমি তাকে বুঝাতে পারি অনেক উপকার হয়।জাযাকুমুল্লাহ।

Please log in or register to answer this question.

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

506 questions

501 answers

70 comments

331 users

22 Online Users
0 Member 22 Guest
Today Visits : 4614
Yesterday Visits : 5518
Total Visits : 930338

Related questions

...