0 votes
14 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (4 points)
edited by
আমি কিছু দিন আগে একটি চাকুরির পরীক্ষা দিয়েছি। আল্লাহ্ তালা চাইলে আমার চাকুরি টি পাবার সম্ভবনা আছে। চাকুরিটি পেলে আমি সেটি করতে চাই, তবে ভুল করে  আমি একবার বলে ফেলেছি চাকুরিটি আমি করবো না। কথাটি আমি মনের ভুলে বলেছি এবং  আমার জানা মতে অন্য কোন মানুষ সেটি শোনেনি । এবং কথাটি বলার পর আমি আল্লাহ্ তালার কাছে মাফ চেয়েছি ।  এখন আমর আরকি কিছু করনীয়  আছে ? এটি যেহেতু জীবিকার সাথে জড়িত তাই সঠিক বিধান টি জানা গুরুত্বপূর্ণ মনে করলাম।

1 Answer

0 votes
by (79,640 points)
জবাব
بسم الله الرحمن الرحيم 


ওয়াদা রক্ষা ইমানের মূলধন।  

মুমিন চরিত্রের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো ওয়াদা রক্ষা করা। ওয়াদা রক্ষা করা পবিত্র কোরআনের নির্দেশ। আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘আমার সঙ্গে করা ওয়াদা তোমরা পূর্ণ কর। আমিও তোমাদের সঙ্গে করা ওয়াদা পূর্ণ করব। আর আমাকেই ভয় কর।’ (সূরা বাকারা : ৪০)। 

অন্যত্র আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা আল্লাহ এবং পরস্পরের সঙ্গে করা ওয়াদা পূর্ণ কর। আর আল্লাহকে সাক্ষী রেখে কৃত ওয়াদা ভঙ্গ কর না।’ (সূরা নাহল : ৯১)।

 নবী-রসুলরা ছিলেন ওয়াদা রক্ষাকারী সত্যনিষ্ঠ মহামানব। হজরত ইসমাইল (আ.) সম্পর্কে আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘এ কিতাবে স্মরণ কর ইসমাইলের কথা। সে ছিল ওয়াদা রক্ষাকারী সত্যনিষ্ঠ নবী এবং রসুল।’ (সূরা মারয়াম : ৫৪)। 

হাদীস শরীফে এসেছে  

عن أبي هريرة عن النبي صلى الله عليه و سلم قال : ( آية المنافق ثلاث إذا حدث كذب وإذا وعد أخلف وإذا اؤتمن خان 

হযরত আবু হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেনঃ মুনাফিকের নিদর্শন তিনটি। যথা- যখন সে কথা বলে তখন মিথ্যা বলে, আর যখন ওয়াদা করে তখন তা পূর্ণ করে না, আর যখন তার কাছে আমানত রাখা হয়, তখন সে তা আত্মসাৎ করে। {সহীহ বুখারী, হাদীস নং-২৫৩৬, ৩৩, সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-১০৭}

ওয়াদা সম্পর্কে আরো জানুনঃ 
,
★প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে আপনি শুধু মুখ দ্বারা উচ্চারণ করেছেন মাত্র।
আপনি ওয়াদাও করেননি,কাহারো সাথে এই বিষয়ে কথাও দেননি।
,
সুতরাং  প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে কোনো সমস্যা নেই।
আপনার কোনো গুনাহ হবেনা।
আপনি উক্ত চাকরি করতে পারেন,কোনো সমস্যা নেই  


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...